সুনামগঞ্জ-২ ( দিরাই-শাল্লা) আসনে তৃণমূলে দীপক চৌধুরীর গণসংযোগ

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটনেট, সুনামগঞ্জ থেকে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে দলীয় প্রতীক নৌকা দিয়ে নির্বাচন করতে নির্দেশ করবেন এই প্রার্থীর পক্ষেই থাকবেন বলে মন্তব্য করেছেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক দীপক চৌধুরী। গতকাল শনিবার দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের আকিলশাহ্ বাজারে গণসংযোগকালে এই মন্তব্য করেন তিনি। সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনের আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী দীপক চৌধুরী বলেন, বর্তমানে নেতৃত্বহীন বিএনপি সকল ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত করছে। তাই তৃণমূলের মানুষকেও এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। বিএনপি-জামায়াত জোট ও ঐক্যজোটের ব্যাপারে জনগণের আস্থা নেই। তাদের বিশ্বাস কেবল আওয়ামী লীগে। আপসহীন সাংবাদিক দীপক চৌধুরী বলেন, দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে। এজন্য প্রয়োজন তরুণ, যোগ্য ও মেধাবী প্রার্থী। দিরাই-শাল্লায় জনগণ ক্লীন ইমেজের প্রার্থী কামনা করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর জনগণের আস্থা বেড়েছে। মানুষ জননেত্রী প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে পরিষ্কার ধারনা পায় যে, বিএনপি লুটপাট করে হাওয়া ভবন সৃষ্টি করেছিলো। এরপর ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য মানুষ হত্যা করেছে,

পেট্রলবোমা নিক্ষপ করেছে, অগ্নিসন্ত্রাস চালিয়েছে। আর আওয়ামী লীগ শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের রাজনীতি করছে। দীপক চৌধুরী আকিলশাহ্ বাজারে মানুষের কাছে সরকারের উন্নয়নমুখী কাজের ও নিজের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্বলিত “লিফলেট” বণ্টন করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার, পদ্মা সেতু নির্মাণ, সমুদ্র সীমানা বিজয়, শ্রমিকদের মজুরী বৃদ্ধি, ফ্লাইওভার নির্মাণ, দরিদ্রতার হার নিম্ন পর্যায়ে, যুদ্ধাপরাধী ও রাজাকারদের বিচার, বয়স্কভাতা প্রদান, বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের কাছে বই বতরণ, মুক্তযোদ্ধাদের সম্মানীভাতা বৃদ্ধি, জঙ্গী ও সন্ত্রাস দমনে সফলতাসহ ৩৬টি ক্ষেত্রে সরকারের অর্জন লক্ষ্যনীয়। স্বৈরাচার এইচ এম এরশাদ ও খালেদা জিয়ার রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে সত্য প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে ব্রতী সাংবাদিক দীপক চৌধুরী এলাকার বাজার পরিদর্শন শেষে আকিলশাহ্ বাজার কমিটির কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে মত বিনিময় করেন তিনি। এ সময় বাজারের সভাপতি তৈয়ব আলী বর্তমানের জটিল রাজনীতি, স্থানীয় সমস্যার উত্তরণ প্রসঙ্গেও বিভিন্ন বিষয় আলোচনায় উত্থাপন করেন। ব্যবসায়ী তৈয়ব আলী বাজারে একটি ব্যাংক স্থাপন ও এলাকায় পুলিশ ফাঁড়ির প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেন। তার বক্তব্য শুনে কলামিষ্ট দীপক চৌধুরী এ ব্যাপারে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের অাশ্বাস দেন তাকে। গণসংযোগে বাউল সম্রাট শাহ্ আবদুল করিমের ভাগিনা বাউল ও গীতিকার শাহ্ আবদুল তোয়াহেদ, ভাটিবাংলা বাউল একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক দোলন চৌধুরী, উজানধল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শেখ সমীরুল, কুলঞ্জের ব্যবসায়ী মো. তহসিল রানা, দিরাই থানা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি রুপন মিয়া, বিপ্র তালুকদার বাবু ও ব্যবসায়ী আবু বকর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

print

Leave a Reply