টিভিতে সাক্ষাৎকার দেয়ার অপরাধে জেলে সম্ভু হাওলাদারের এ কি হাল !

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটনেট, ঢাকা: গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় নিজ পেশার সমস্যা নিয়ে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন মৎস্যজীবী সম্ভু হাওলাদার (৪৫)। কথা বলেছিলেন সরকারি জলাশয়ের ইজারা নিয়ে অনিয়ম বিষয়ে। তার সে বক্তব্য পছন্দ হয়নি স্থানীয় প্রভাবশালীদের। শনিবার বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে বেদম মারপিট করা হয়েছে সম্ভূকে।
স্বজনরা জানান, সম্ভু হাওলাদার স্থানীয় মহিমাগঞ্জ মৎস্যজীবি সমিতির সভাপতি। তিনি মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের জিরাই গ্রামের পরলোকগত চৈতা হাওলাদারের ছেলে। শনিবার সম্ভু হাওলাদারকে বাড়ি থেকে নিয়ে গিয়ে বেদম মারপিট করেছে একদল সন্ত্রাসী। দুপুরে স্থানীয় শাহিন মিয়া কয়েকজন সহযোগী নিয়ে সম্ভুর বাড়িতে হাজির হন। এরপর তাকে তুলে নিয়ে পার্শ্ববর্তী কোচাশহর বাজারে নিয়ে মারপিট করে। তার আর্ত চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন উদ্ধারের পর গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। নির্যাতনকারী শাহিন মিয়া একই উপজেলার শাখাহার ইউনিয়নের দইহারা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।
আহত সম্ভু হাওলাদার জানান, সম্প্রতি একটি টেলিভিশনে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার একাধিক সরকারি জলাশয় ইজারা দেয়া নিয়ে অনিয়ম ও দূর্নীতির অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। সেখানে সম্ভু হাওলাদার একটি সাক্ষাতকার দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন ‘জাল যার জলাভুমি তার’ এই শ্লোগান এখন পরিবর্তন হয়েছে। এখন ‘ক্ষমতা যার জলা তার’। তিনি কেন এই ধরণের বক্তব্য দিলেন, তা জানতে চেয়ে মারপিট করেছে সন্ত্রাসীরা।
গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ওসি একেএম মেহেদি হাসান বলেন, নির্যাতনের খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়। তবে দুর্বৃত্তদের আটক করা সম্ভব হয়নি। অভিযুক্তদের আটকে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *