প্রিন্ট প্রিন্ট

‘মেধার জোরে আমেরিকায় আসুন’

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অভিবাসন নীতি নিয়ে নিজের কঠোর মনোভাবের জন্য বিশ্বের নানা প্রান্তে সমালোচিত হচ্ছেন ট্রাম্প। বিশেষ করে অবৈধ অভিবাসী বাবা-মায়ের থেকে তাদের সন্তানরা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় দেশে-বিদেশে প্রবল নিন্দার ঝড় ওঠে।
এবার সেই অভিবাসন নীতি নিয়েই মুখ খুললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। জানালেন, তিনি চান অন্য দেশ থেকে যারা আমেরিকায় আসছেন বা আসতে চান, তারা মেধার ভিত্তিতে আসুন। অবৈধ ভাবে সীমান্ত পেরিয়ে নয়। গতকাল রবিবার হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে তাঁর অভিবাসন নীতি নিয়ে সাংবাদিকরা নানা প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প জানান, মেধার জোরে আমেরিকায় কেউ থাকতে এলে তাতে তাঁর প্রশাসনের আপত্তি নেই। তিনি বলেন,‘সীমান্ত নিয়ে আমি খুবই কড়া। সেটা সবাই জানে। আমরা চাই, বিদেশ থেকে এখানে যাঁরা আসবেন, তাঁরা বৈধ ভাবে সীমান্ত পেরিয়ে আসবেন এবং মেধার ভিত্তিতে এ দেশে আসুন। আমরা যেটা চাই সেটা হল মেধা’। অর্থাৎ উচ্চশিক্ষিত এবং তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের দিকেই স্পষ্ট ইঙ্গিত করেছেন ট্রাম্প। দীর্ঘ ৩৫ বছর পরে অনেক গাড়ি সংস্থা তাদের দেশে ব্যবসা করতে আসছে উল্লেখ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমি চাই অনেক মানুষ এ দেশে এসে থাকুন। অনেক ভাল ভাল গাড়ির সংস্থা এ দেশে আসছে। ৩৫ বছর পরে এটা সম্ভব হয়েছে। উইসকনসিনে এমনই এক সংস্থা বিশাল কারখানা খুলছে। তাই আমরা চাই মেধার জোরে বিদেশ থেকে অনেকেই এখানে আসুন যারা আমাদের সাহায্য করতে পারবেন’। সাক্ষাৎকারে তিনি আরও এক বার ‘চেন মাইগ্রেশন’ নীতির সমালোচনা করে বলেন, ‘এটা খুবই খারাপ একটা নীতি। অনেকেই আমার সঙ্গে সম্মত হবেন। এ দেশের বেশির ভাগ মানুষই বলবেন যে তারা চান না অপরাধীরা এ দেশে প্রবেশ করুক। যারা আমাদের কোনও সাহায্য করতে পারবে না। তাই আমি চাই কড়া অভিবাসন নীতি’। মার্কিন অর্থনীতির প্রশংসা করে ট্রাম্প বলেন, ‘অর্থনৈতিক বিচারে বিশ্বের এক নম্বর দেশ এখন আমেরিকাই’।তিনি বলেন, ‘চীন বা অন্য দেশের সঙ্গে তুলনা করে দেখুন। আমরাই সবার সেরা। সে জন্যই প্রচুর মানুষ এ দেশে আসতে চান। আর তার জন্য সীমান্তে আমাদের রক্ষীরা দারুণ কাজ করছেন’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ

চিত্র নায়িকা মুনমুনের স্বপ্ন ছিলো চলচ্চিত্র পরিচালক হবার !

কড়া নিরাপত্তায় নগরীতে থার্টিফাস্ট নাইট !