মার্কিন এফ-৩৫ বিমানে চীনা উপকরণ, গ্রাউন্ডেড বিমান দ্রুত ছেড়ে দেয়ার আবেদন

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটনেট: মার্কিন সামরিক বাহিনী এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান থেকে চীনা উপকরণ আলাদা করে গ্রাউন্ডেড বিমানগুলোকে সার্ভিসে ফিরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে। পেন্টাগনের শীর্ষ পর্যায়ের অ্যাকুইজিশন কর্মকর্তা বলেন, চীনা উপকরণ বিমান থেকে সরানোর প্রচেষ্টা চলার পাশাপাশি কীভাবে এই উপকরণ বিমানের ইঞ্জিনের টার্বোমেশিনে ঢুকলো তাও তদন্ত করা হচ্ছে।
বলা হচ্ছে এফ-৩৫ জঙ্গিবিমানে যে টার্বোমেশিন ব্যবহার করা হয়েছে তাতে চীনা উপকরণে তৈরি ম্যাগনেট ব্যবহার করা হয়েছে। এই টার্বোমেশিন তৈরি করেছে মার্কিন কোম্পানি হানিওয়েল। চীনা উপকরণ বিমানে থাকার কারণে পেন্টাগন চলতি সপ্তাহের প্রথম দিকে লকহিড মার্টিন কোম্পানির কাছ থেকে এফ-৩৫ বিমান গ্রহণ বন্ধ করে দিয়েছে।
লকহিড কোম্পানি বলছে, এফ-৩৫ তৈরির সময় চীনা কাঁচামাল আমেরিকাতে ম্যাগনেটাইজড করা হয়েছে এবং এর স্পর্শকাতর তথ্যের ব্যাপারে কোনো দেশকে প্রবেশাধিকার দেয়নি। ফলে এই বিমানে নিরাপত্তার কোনো সমস্যা নেই।

এখন দুটি বিষয় নিয়ে মার্কিন সামরিক বাহিনী কাজ করছে- সেগুলো হচ্ছে নিরাপত্তার ব্যাপারে কোনো রকমের সমস্যা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা। এছাড়া এফ-৩৫ চলাচলের সময় নিরাপত্তাগত কোনো সমস্যা আছে কিনা তাও বের করা। মার্কিন আন্ডার সেক্রেটারি অফ ডিফেন্স ফর অ্যাকুইজেশন অ্যান্ড সাসটেইনমেন্ট সাংবাদিকদের বলেন, এই মুহূর্ত পর্যন্ত কোনো ধরনের সমস্যা দেখা যায়নি।
লা প্ল্যান্টে বলেন, তদন্ত করে যদি জাতীয় নিরাপত্তা গত কোনো সমস্যা না পাওয়া যায় তাহলে এই বিমান দ্রুত উৎপাদনের ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়া যেসব বিমান এরইমধ্যে বাহিনীতে যুক্ত হয়েছে সেগুলোকে আর ফেরত নেয়া হবে না। ব্লুমবার্গ গতকাল শুক্রবার একটি রিপোর্টে জানিয়েছে, এ পর্যন্ত মোট ৮২৫টি এফ-৩৫ বিমান হস্তান্তর করা হয়েছে যাতে চীনা উপকরণ ব্যবহৃত হয়েছে।
আমেরিকা দেশের বাইরে এ পর্যন্ত ছয়টি এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান মোতায়েন করেছে। এছাড়া, ইউক্রেন রাশিয়া যুদ্ধ শুরুর আগে জার্মানিতে কয়েকটি এফ-৩৫ বিমান মোতায়েন করে মার্কিন সরকার।

সূত্র: পার্সটুডে।

Related Articles

Back to top button